,

ফেসবুকে বাংলাদেশির প্রেমে নোবেল বিজয়ী মালালা

বিশ্ব ভালবাসা দিবস কালক্রমে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে । কালক্রমে শ্রেষ্ট স্বপ্ন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধের উদ্দেশ্যে তরুন তরুনীর প্রেমের সম্পর্ক মুঠোফোনে ইমেলে অনলাইন ফেইসবুক চ্যাটিংয়ে প্রেম বার্তা এস এম এস মনের কথা শেয়ার গড়ে উঠতেছে ভবিষ্যৎ সোপান।

বর্তমানে বিখ্যাত প্রেমের সর্ম্পকের তালিকায় বিশ্ব ভালবাসা দিবস জানা যায়-পাকিস্তানের নারী ও শিশু অধিকার কর্মী শান্তিতে নোবেল বিজয়ী মালালা ইউসুফজাই ফেইসবুকে বাঙ্গালী উপন্যাসিক কবি সাংবাদিক এন ইউ আহম্মেদের সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক বিগত তিন বছর যাবত চলমান। ময়মনসিংহ জেলার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা আঠারবাড়ী ইউনিয়নের সহিলাটি গ্রামের উচ্চবিত্তশালী মুসলমান পরিবার পিতা-মো: সাইদুল ইসলাম মাতা- মোছা: মাতিয়া খাতুন, ৫ ভাই ১ বোন সবার বড় এন ইউ আহম্মেদ। মাতা- গৃহীনী পিতা-মো: সাইদুল ইসলাম বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী হিসেবে সুপরিচিত রয়েছেন।

দীর্ঘ দিন যাবত ফেইসবুকে মালালার ভেরিফাই আইডি সহ দুইটি লাইক পেইজের মাধ্যমে দুজনে এসএমএস চ্যাট প্রেম বার্তা চ্যাটিং লিষ্ট করে থাকেন। গনমাধ্যেমে মালালার যে ভেরিফাই ফেইসবুক আইডিটি ও লাইক পেইজ প্রকাশিত হয়েছে, সেই ভেরিফাই ফেইসবুক আইডি দিয়ে চ্যাটিং হয়। এন ইউ আহম্মেদ নিজের ফেইসবুক আইডিতে মালালার সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পকের চ্যাটিং সহ লিখে পোষ্ট করলে পারিবারিক ভাবে মা বাবা সহ ময়মনসিংহ জেলা ও বাংলাদেশের সচেতন সাধারন মানুষ সর্বত্র জানতে পারে। এন ইউ আহম্মেদ প্রতিনিধিকে জানান বিবাহ বন্ধন শ্রেষ্ট স্বপ্ন সকল স্বপ্নের মাঝে। স্বপ্নটি ব্যক্তিগত ভাবে প্রত্যেকের মনে লালন পালন হয়।

মালালার সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক বিষয়ে তার মা বাবা পজিটিভ সাপোর্ট রয়েছেন ভালবাসা একটি মৌলিক বিষয় ভালবাসা আছে বলে পৃথিবী আছে। ঈর্ষা হিংসা সকল ক্ষেত্রে প্রভাব পেলে । ভালবাসা কোন প্রভাব নেই । ভালবাসা ধনী দরিদ্রে মাঝে কোন বৈষম্য রাখে না। আমরা দুজনে প্রেমের সর্ম্পক বিবাহ বন্ধনের মাধ্যেমে পরিবার গঠন করব এই উদ্দেশ্যে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তুলেছি।

মালালা আমাকে কথা দিয়েছে সে বাংলাদেশে আমার নিকট আসবে। এন ইউ আহম্মেদের লিখা “থাকতো যদি ভালবাসার লাইসেন্স” উপন্যাসটি ২০১৬ সালে ২১শে বই মেলায় প্রেমিকা মালালা ইউসুফজাই কে উৎসর্গ করে প্রকাশ করা হয়। জানা যায় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ইতিহাস বিভাগ এর ছাত্র। উপন্যাসিক এন ইউ আহম্মেদ বাংলাদেশের বিখ্যাত কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহম্মেদের শিষ্য। এন ইউ আহম্মেদের মা বাবা প্রতিনিধিকে জানান-আমার ছেলের ভালবাসার সর্ম্পকটি সাফল্য হোক দোয়া করি। মালালা বাংলাদেশে আসলে স্বাগতম জানিয়ে নিজের মেয়ের মত আদর ¯েœহ করে বরণ করে নিবো।

এন ইউ আহম্মেদের মা বাবা প্রেমের সর্ম্পক করে বিয়ে করে ছিলেন বলে জানান। সাধার লোকজন বলেন ছেলেটি সৎ কর্মঠ পরিশ্রমী। যদিও উচ্চবৃত্তের পরিবারের সন্তান তবু গরিব দুখি মানুষের সঙ্গে বেশী চলাফেরা করেন। নিজে চাকুরী করে লেখা পড়া করে থাকেন। ছেলেটি অহংকার মুক্ত মনে বলেন আমার পিতা বড়লোক, আমি তো বড়লোক না। আমি সাধারন একজন গরীব মানুষ। এমন অসাধারন অহংকার মুক্ত মনের ছেলে এন ইউ আহম্মেদের ভালবাসার সর্ম্পকটি সাফল্য হোক সাধারন মানুষের প্রত্যাশা। এন ইউ আহম্মেদ বলেন মন দিয়ে গভীর ভাবে তাকে কাছে অনুভব করি। মালালাকে বিশ্ব ভালবাসা দিবসের শুভেচ্ছা ও দীর্ঘায়ু কমনা করছি।

উল্লেখ্য মালালা ইউসুফজাই একজন পাকিস্তানী শিক্ষা আন্দোলন কর্মী।মালালা যার আক্ষরিক অর্থ- “দুঃখে অভিভূত” ২০১২ সালে ৯ই অক্টোবর তালেবান হামলায় তিনটি গুলিতে আহত হন। তিনি সতের বছর বয়সে শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার লাভ করেন বর্তমানে আমেরিকা র্বামিংহামে বসবাস করছেন।

Print Friendly, PDF & Email

© ARTEEBEE Inc. 2016 ‐ 2018 Version: 20180213t091722

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *