,

‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তি বাস্তবায়নে সাড়া নেই মিয়ানমারের’

সংবাদ ডেস্ক : জাতিসংঘের সংস্থাগুলো রোহিঙ্গাদের জরুরি সহায়তা দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে গেলেও এ বিষয়ে দাতাদের আগ্রহ যে কমে আসছে, সে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানিয়েছেন বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির নির্বাহী পরিচালক ডেভিড বিজলি।

তবে বাংলাদেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) আগের মতই পাশে থাকবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

রোম সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সোমবার সন্ধ্যায় তার হোটেলে সাক্ষাৎ করেন বিজলি। পরে পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক বৈঠকের বিভিন্ন তথ্য সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ডব্লিউএফপি রোহিঙ্গাদের খাদ্য সহায়তা দিতে অগ্রণী ভূমিকা রেখে চলেছে। গত ছয় মাসে তারা আট কোটি ডলারের খাদ্যসামগ্রী বণ্টন করেছে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবিরগুলোতে।

ডব্লিউএফপির মূল্যায়ন হল, প্রতি মাসে আড়াই থেকে তিন কোটি ডলারের খাদ্যের দরকার তাদের (রোহিঙ্গাদের)। এ ব্যাপারে আন্তর্জাতিক দাতাদের আগ্রহটা যে কমে আসছে সে বিষয়ে উনি (ডেভিড বিজলি) প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেছেন।

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা ১০ লাখ রোহিঙ্গার প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বলে ভ্যাটিকান সিটির সেক্রেটারি অব স্টেটকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সীমান্তের ওপার থেকে সমস্যার সৃষ্টি করা হয়েছে এবং এর সমাধানও রয়েছে সেখানে।  তাই চুক্তি বাস্তবায়নও করতে হবে মিয়ানমারকে।  কিন্তু এ ব্যাপারে আমরা এখনো মিয়ানমারের কাছ থেকে কোনো সাড়া পাইনি।

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেছেন, রোহিঙ্গারা যাতে তাদের স্বদেশ ভূমিতে ফিরে যেতে উৎসাহিত হয়, মিয়ানমারকে সে ধরনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।  এ দায়িত্ব মিয়ানমার সরকারকে নিতে হবে।

এ প্রসঙ্গে তিনি গত বছর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে তাঁর পেশ করা পাঁচ দফা প্রস্তাবের কথা আবার উল্লেখ করেন।  তিনি আরো বলেন, মিয়ানমার এখনো কফি আনান কমিশনের রিপোর্ট বাস্তবায়ন করেনি।

বৈঠকে ভ্যাটিকান সিটির সেক্রেটারি অব স্টেট সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকারের কঠোর লড়াইয়ের প্রশংসা করেন।

Print Friendly, PDF & Email

© ARTEEBEE Inc. 2016 ‐ 2018 Version: 20180213t091722

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *