রবিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৮, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ন




গণধর্ষণের পর ভিডিও প্রকাশ করার অভিযোগে ২ যুবককে আটক 

গণধর্ষণের পর ভিডিও প্রকাশ করার অভিযোগে ২ যুবককে আটক 




 চুনারুঘাট প্রতিনিধি 

চুনারুঘাটে এক কিশোরী (১৫) কে গণধর্ষণের পর ভিডিও প্রকাশ করার অভিযোগে ২ যুবককে আটক করেছে পুলিশ।  বুধবার  বিকেলে অভিযুক্ত ওই ২ যুবককে স্থানীয় আহম্মদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান সনজু চৌধুরীর মাধ্যেমে আমুরোড বাজার থেকে আটক করে  পুলিশ। ধর্ষণের বিষয়ে ২০মার্চ চুনারুঘাট থানায় ধর্ষিতা ওই কিশোরী ৪ জনকে আসামী করে ধর্ষন চেষ্টার মামলা দায়ের করে। চুনারুঘাট থানার মামলা নং- ২১ তাং ২০-০৩-১৮ইং। জানা যায়, গত ১৮’ই মার্চ নিজ বাড়ী কালিশিরি হতে আমুরোড বাজার আসার পথে সুন্দরপুর গ্রামে পৌঁছলে মামলার আসামী এই গ্রামের আঃ গোফারের পুত্র শফিকুল ইসলামসহ অপরাপর আসামীরা থাকে জোর পূর্বক সাতছড়ি জঙ্গলে নিয়ে যায়। পরে তারা সবাই মিলে কিশোরীকে ধর্ষণ করে এবং ওই ধর্ষণের অপকর্মটি ভিডিও চিত্র ধারণ করে।
সেই লোমহর্ষক ভিডিও চিত্রটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে এবং বিভিন্ন মোবাইলে ছড়িয়ে দেয়। সাতছড়ি থেকে ধর্ষিতা ওই কিশোরী আহত অবস্থায় বাড়ীতে এসে বিষয়টি তার পরিবারকে জানায়। বিকেলেই স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে গেলে তিনি তাদেরকে দ্রুত চুনারুঘাট থানায় যাওয়ার সু-পরামর্শ দেন।

পরবর্তীতে চুনারুঘাট থানার ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান এসআই কাসী শর্মাকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে পাঠান।

পরিদর্শন শেষে এসআই কাসী অভিযোগ আমলে নিয়ে সুন্দরপুর গ্রামের আঃ গোফারের পুত্র সফিকুল ইসলাম (১৮), গোছাপাড়া গ্রামের মৃত কিম্মত আলীর পুত্র নাইম মিয়া (১৭), কালামন্ডল গ্রামের আরজু মিয়ার পুত্র সাইফুল ইসলাম (১৮) ও হাড়াজোড়া গ্রামের তাহির মিয়ার পুত্র সুজন (১৬) কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

এদিকে ধর্ষকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও মোবাইলে ধর্ষণের ভিডিওটি প্রচার করেও বীরদর্পে হাট-বাজারে ঘুরাফেরা করতে থাকে। ভিডিওটি স্থানীয় চেয়ারম্যানের নজরে আসলে ইউপি সদস্য দুলাল ভূইঁয়া ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে তাদের আটক করেন এবং চুনারুঘাট থানার এসআই কাসী শর্মা ও এসআই সুমনসহ একদল পুলিশ ইউপি অফিসে এসে আটককৃত আসামীদের চুনারুঘাট থানা হাজতে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানার ওসি কেএম আজমিরুজ্জামান বলেন,  কেবা কারা ভিডিওটি যোগাযোগ মাধ্যেম ছড়িয়ে দেয়। ধর্ষিতা বাদী হয়ে অভিযোগ দিয়েছেন ধর্ষন চেষ্টার। অভিযোগটি আমলে নিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ২২ মার্চ  ধর্ষিতাকে মেডিকেল  পরীক্ষার  করা হবে। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে অপরাধীদের  বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..




Loading…








© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com