May 27, 2018, 9:34 pm




শ্রীপুরে গাজীপুর শাহীন ক্যাডেট একাডেমির শিক্ষার নামে বানিজ্য

শ্রীপুরে গাজীপুর শাহীন ক্যাডেট একাডেমির শিক্ষার নামে বানিজ্য

dig




এমদাদুল হক,নিজস্ব প্রতিবেদক
গাজীপুরে শ্রীপুর উপজেলার অন্যতম শিল্পখ্যাত মাওনা চৌরাস্তায় গাজীপুর শাহীন ক্যাডেট এন্ড স্কুল একাডেমির বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির মাধ্যমে শিক্ষার নামে বানিজ্য করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গণস্বাক্ষরকৃত ওই প্রতিষ্ঠানের সাধারণ অভিভাবকদের পক্ষে মোশাররফ সরকার উপজেলা র্নিবাহী র্কমর্কতার কাছে মঙ্গলবার বিকেলে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে জানা যায়, মাওনা চৌরাস্তার অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গাজীপুর শাহীন ক্যাডেট স্কুল এন্ড একাডেমি ২০০৯ সালে মাওনা শাখায় র্কাযক্রম শুরু করে। এরপর থেকেই বিভিন্ন চটকদারী বিজ্ঞাপন, ব্যানার, ফেষ্টুন লাগিয়ে এলাকার সাধারণ অভিভাবকদের কে আকর্ষিত করে তোলে।

বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রায় দুই হাজার ছাত্র ছাত্রী রয়েছে। প্লে- থেকে ৭ম শ্রেনী পর্যন্ত ভর্তির অনুমোদন থাকলেও দশম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র/ছাত্রী ভর্তি করিয়ে পড়ানো হচ্ছে। ভাড়ায় চালিত স্কুলটির নেই কোন খেলার মাঠ, কমনরুম। ছোট ছোট কক্ষে করানো হয় পাঠদান। অভিভাবকদের অভিযোগ, শিক্ষার নামে শুধুই প্রতারণা ছাড়া এখানে আর কিছুই হয় না। তাদেরকে জিম্মি করে কর্তৃপক্ষ শিক্ষার নামে লাখ লাখ টাকা বানিজ্য করছে।

প্রতিষ্ঠানটিতে ছাত্র/ছাত্রী র্ভতি করেই শুরু হয় বিভিন্ন ভাবে বাড়তি টাকা আদায়ের নানা অযুহাত। একবার ভর্তি করলে প্রতি বছর বছর ভর্তি ফি ২৫শ থেকে ৪হাজার টাকা, সেশন ফি ৪ হাজার থেকে ৭ হাজার টাকা, মাসিক বেতন ৮শ থেকে ৩হাজার পাঁচশত টাকা, প্রতি মাসে ক্লাশপার্টি নামে ৪ শত টাকা, সাপ্তাহিক পরীক্ষার ফি, মাসিক পরীক্ষা ফি, ফিটনেস বিহীন গাড়ি দিয়ে অতিরিক্ত মাসিক ভাড়া আদায়সহ নানা ফন্ধি।

অভিভাবকদের পক্ষে মোশাররফ সরকার বলেন, আমাদের সন্তানদের ভবিষৎ চিন্তা করে আমাদের কষ্টার্জিত টাকা খরচ করছি কিন্তু এই প্রতিষ্ঠানের ভাল শিক্ষক/ শিক্ষিকা নেই, দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে সামান্য বেতন দিয়ে শিক্ষক নিয়োগ করে। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে তাদের জীবন বাচাঁতে স্কুলের ছাত্র/ছাত্রীদের প্রাইভেট পড়াতে হয়। প্রাইভেট না পড়লে পরীক্ষায় কম নাম্বার দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। মেধাস্থান নিয়োগে জালিয়াতি করে। গত কয়েক মাস আগে স্কুলের এক শিক্ষক লাঠি দিয়ে এক সাথে ২২জন ছাত্র কে পিটিয়ে জখম করে। এ ঘটনায় অভিভাবকরা ক্ষুব্দ হয়ে স্কুলে হামলা চালাতে চাইলে স্থানীয় এলাকার লোকজনরে মাধ্যমে মীমাংসা করা হয়। কোন ছাত্র/ছাত্রী বাইরে থেকে কোন শিক্ষা উপকরন ক্রয় করতে পারে না, তাদের নিজস্ব কলম খাতা গাইড বই তদের কাছ থেকে ক্রয় করতে বাধ্য করে।

গাজীপুর শাহীন ক্যাডেট স্কুল এন্ড একাডেমির মাওনা শাখার পরিচালক আনিছুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, প্রতিষ্ঠানটির ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই একটি মহল এরকম অপপ্রচার চালাচ্ছে।
এ ব্যাপারে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রেহেনা আকতার জানান, শাহীন ক্যাডেটের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্তের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..











© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com