May 27, 2018, 7:27 pm




তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রের হাত ভেঙ্গে দিল শিক্ষক

তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রের হাত ভেঙ্গে দিল শিক্ষক




শামসুজ্জোহা বাবু, গোদাগাড়ী প্রতিনিধি : রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ক্লাশ চলাকালীন তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র তাহামিদুজ্জামান (৮) লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোতাহার আলী। মঙ্গলবার ঘৃণ্য এই কাজটি ঘটেছে। ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

গোদাগাড়ী উপজেলা শিক্ষা অফিস সৃত্রে জানা যায়, ১৭ এপ্রিল উপজেলার গোমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে মৌকিকবাবে ডেপুটেশনে বদলী হয়ে সারাংপুর কাচারী পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আসে। কিন্ত সাত দিনের মাথায় ছাত্র পিটিয়েছেন শিক্ষক মোতাহার।জানা গেছে, উপজেলার জাহানাবাদ কাউসারুজ্জামানের ছেলে। সারাংপুর কাচারী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র তাহামিদুজ্জামানসহ অন্য ছাত্রদের সামনে তিনি নিজেকে আল্লাহ ও নবী দাবি করলে তাহামিদুজ্জামানসহ ছাত্ররা সহকারী শিক্ষক মোতাহারকে প্রশ্ন করে যে স্যার আপনি আল্লাহ ও নবী মানে বলায় বাহির থেকে লাঠি এনে দিয়ে ওই কোমলমতি ছাত্রটিকে পেটাতে থাকে। তার বাম হাতটি ভেঙ্গে যায়। তারপর এক পর্যায়ে ছাত্র তাহামিদুজ্জামান অজ্ঞান হয়ে পড়ে।

তাহামিদুজ্জামান জানায়, কয়েকদিন ধরে অন্য শিক্ষার্থীদের লাঠি দিয়ে মারত কিন্ত সব ছাত্রদের স্যার হুমকি দিয়ে বলে যদি তোরা বাড়ী গিয়ে মারার কথা বলিস তাহলে সামনের দিনে আরও মারব।সেই কারণে কোন ছাত্র মুখ খুলতে সাহস পায়নি। ছাত্র পেটানোর ওস্তাদ অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মোতাহার মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। সারাংপুর কাচারী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুকিত বলেন সাথে ছাত্র পেটানোর ঘটনায় সাথে সাথে গোদাগাড়ী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অবহিত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুর-উন নাহার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ছাত্র পিটানোর ঘটনা খুবই দুঃজনক তাই শিক্ষক মোতাহারকে মৌখিকভাবে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রকে পিটানোর ঘটনায় তদন্ত করে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

খবরটি শেয়ার করুন..











© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com