মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০৮:২৪ অপরাহ্ন



১৩ জন ক্ষতিগ্রস্তদের চেক বিতরণ  করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ

১৩ জন ক্ষতিগ্রস্তদের চেক বিতরণ  করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ



নুর উদ্দিন সুমনঃ হবিগঞ্জ জেলার চারটি ভূমি অধিগ্রহণ মামলার  ১৩ জন ক্ষতিগ্রস্ত  মালিকদেরকে ক্ষতিপূরণ এর চেক বিতরণ করা হয়।তারা বিভিন্ন  স্থাপনা নির্মানের জন্য সরকারীভাবে  ভূমি  অধিগ্রহনকৃত ক্ষতিগ্রস্তকৃত। জিবি   ৫৫ সদর দপ্তর, শায়েস্তাগঞ্জ থানা, সিলেট ও বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ড লিমিটেড সহ নানা স্থাপনা নির্মাণের জন্য প্রায়  ১ কোটি ২৮ লাখ ৯৪ হাজার ৭’শ ৬৫ টাকা ৬৪ পয়সার চেক হস্তান্তর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) সন্ধ্যার দিকে জেলা প্রশাসক তার অফিস কক্ষে পুরুষ-মহিলা সহ ১৩ জন জমির মালিকের হাতে উপরোক্ত টাকার চেক হস্তান্তর করেন।   ক্ষতিসাধীত চেক প্রাপ্ত ব্যক্তিরা  হলেন, কাজী আবুল কাশেম শিশু (৪০ হাজার ২’শ ৫০/ ৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা), মোছাঃ খুশ বানু চৌধুরী (১০ হাজার ৬’শ ৮ টাকা ১৪ পয়সা), বারিক চৌধুরী (২১ হাজার ১’শ ৭৪ টাকা ৩৫ পয়সা), মোছাঃ আমিনা খাতুন (১ লাখ ২৫ হাজার ৮’শ ১০ টাকা), মোঃ কবির আলী (৫ লাখ ৮৭ হাজার ৮’শ ৮০ টাকা), মোছাঃ সিতারা বেগম (৭ হাজার ৯’শ ৮৮ টাকা ২৯ পয়সা)/ ১৪ হাজার ৩০ টাকা ৪৫ পয়সা), মোঃ জালাল খান (৩১ লাখ ৯৭ হাজার ৪’শ ৪২ টাকা ৯১ পয়সা), মোঃ নুরুউদ্দিন জাহাঙ্গীর (৬৩ লাখ ৯৪ হাজার ৮’শ ৮৫ টাকা ৮২ পয়সা), মোঃ আব্দুর রহমান (৯ লাখ ৯৬ হাজার ১’শ ৬৭ টাকা ৫৯ পয়সা), মোঃ আব্দুল মান্নান (৯ লাখ ৯৬ হাজার ১’শ ৬৭ টাকা ৫৯ পয়সা) এবং মোঃ আব্দুল হান্নান (৪২ হাজার ৩’শ ৬০ টাকা ৫০ পয়সা)। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ ফজলুল জাহিদ পাভেল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ নুরুল ইসলাম,বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া,
আরডিসি মোঃ নুরে আলম, এনডিসি মোঃ বেলায়েত হোসেন ও সাংবাদিক রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন। জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ  জানান, ৩য় দফায় ওই সমপরিমান টাকার চেক স্ব স্ব জমির মালিকদের হাতে প্রদান করা হলেও অধিগ্রহনকৃত অবশিষ্ট জমির মালিকগণও তাদের ক্ষতিপূরনের চেক হাতে পাবেন। তবে এ ক্ষেত্রে অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকগণ তাদের কাগজপত্র সহ নিজেদের মালিকানা সুনিশ্চিত করতে হবে এবং তা শতভাগ যাচাই-বাছাই করেই পরবর্তী চেকগুলো তুলে দেয়া হবে।  উক্ত জমির মালিকগণ  ক্ষতিপূরন বাবদ টাকা পেতে দৌড়ঝাপ করলে জেলা প্রশাসক  তার  নজরে আসে।  তিনি অতি সহজে   সরকারীভাবে অধিগ্রহনকৃত জমির প্রকৃত মালিকদের টাকা দ্রুত বুঝিয়ে দিতে তড়িৎ পদক্ষেপ গ্রহন করেন। এরই আলোকে পর্যায়ক্রমে উক্ত জমির মালিকগণ তাদের জমির ক্ষতিপূরণের  টাকার চেক  পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠেন। এদিকে দ্রুততার সহিত বিলম্ব ছাড়াই কাজ সম্পন্ন করে দেয়ায়,
 এ মহান উদ্যোগ গ্রহনে  ক্ষতিপূরণ হওয়া মালিক পক্ষগণ,  জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদকে  অভিনন্দন  ও  কৃৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ।

খবরটি শেয়ার করুন..








© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY W3Space.net