September 21, 2018, 5:53 pm

শিরোনাম :
চুনারুঘাটে সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ দুদকের তদন্ত শুরু, বেরিয়ে আসছে অজানা কাহিনী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে নবাগত পুলিশ সুপার হবিগঞ্জকে সুশৃংখল জেলায় রূপান্তর করতে সক্ষম হব আইসিবির ৫ কর্মকর্তাসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে ১২ মামলা ‘সরকারের চাপে পদত্যাগ ও নির্বাসিত হতে বাধ্য হয়েছি’ আপত্তি সত্বেও সংসদে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কারও মান-অভিমান ভাঙানোর ইচ্ছে নেই: প্রধানমন্ত্রী সাভারে পুলিশ সোর্স নয়নকে পিটিয়ে হাত-পা ভাঙ্গলো সন্ত্রাসীরা শ্রীপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ প্রতিবন্ধী কোটা রাখতে সংসদীয় কমিটির সুপারিশ



ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশীদের ঈদ-উল-আযহা উদযাপন

ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশীদের ঈদ-উল-আযহা উদযাপন






রফিকুল ইসলাম আকাশ, ওয়াশিংটন প্রতিনিধি : বাঙ্গালী অধ্যুষিত এলাকা আরলিংটন ভার্জিনিয়ায় বাংলাদেশীদের তত্বাবধানে পরিচালিত বাইতুল মোকাররম জামে মসজিদে বিভিন্ন দেশের মুসলিম সম্প্রদায় তাদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন।

এবছর বাইতুল মোকাররম জামে মসজিদে ঈদ-উল-আযহার নামাজ যথাক্রমে সকাল আটটায়, সকাল সোয়া নয়টায়, সকাল সোয়া দশটায় অনুষ্ঠিত হয়।

ঈমামতি করেন যথাক্রমে সকাল আটটায় ইমাম ওয়াইস আহমেদ, সকাল সোয়া নয়টায় ডক্টর দাউদ নাসিমি, এবং সকাল সোয়া দশটায় হাফেজ আইমান শাহ।

ঈদ-উল-আযহার নামাজ শেষে বিশ্ব মানবতার শান্তি কামনায় মোনাজাত করা হয়। ঈদের নামাজে প্রবাসী বাংলাদেশী ছাড়াও পৃথিবীর অন্যান্য মুসলিমদের অংশগ্রহণ লক্ষনীয় , নামাজ শেষে সকলে কোলাকুলি ও সৌহার্দ বিনিময় করেন।

২০১২ সাল থেকেই প্রবাসী বাংলাদেশীদের তত্বাবধানে ২১১৬ সাউথ নেলসন স্ট্রিট, আরলিংটন, ভার্জিনিয়ায় মসজিদটিতে নামাজ, আল্ কোরআন শিক্ষা, ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

সরকারীভাবে অনুমতি থাকায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে মুসলিম সম্প্রদায় কুরবানী দিয়ে থাকেন। বৃহত্তর ওয়াশিংটন ডিসিতে ৪ থেকে ৫ জায়গায় কুরবানী দেয়া হয় বলে জানা যায়।

যারা কুরবানী দেয়ার নিয়ত করেন, তারা সাধারণত প্রথম জামাত আদায় করেই কুরবানীর উদ্দেশে গরু-ছাগলের খামারে রওনা দিয়ে থাকেন।

বৈরি আবহাওয়া উপেক্ষা করে ধর্মীয় রীতিনীতি পালনে প্রবাসী বাংলাদেশীরা মেরিল্যান্ডের ওয়েস্থাম লেন(মেকানিকস ভিল), ক্লিনটন, ভার্জিনিয়ার ম্যানাসাস এবং পেনসিলভানিয়াতে গরু, ছাগল, মেষ কুরবানী করেন বলে জানা গেছে ।

হযরত ইব্রাহীম (আঃ) এর সময় থেকেই কুরবানীর প্রচলন, বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায় যার যার সাম্যর্থ ও সাধ্যমতো কুরবানী দিয়ে থাকেন ।

ঈদ মানে আনন্দ। ঈদ মানে খুশির জোয়ার। ঈদ মানে একে অপরের প্রতি ভালবাসা, ভাতৃত্ববোধ, সহমর্মিতা ও সহযোগিতার অপূর্ব বন্ধন । এই আনন্দ ও উৎসব মুসলিম উম্মাহর জীবনে বয়ে আনে খুশীর বন্যা , ভুলিয়ে দেয় সকল বিভেদ ।

খবরটি শেয়ার করুন..


Loading…






© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com