September 21, 2018, 6:02 pm

শিরোনাম :
চুনারুঘাটে সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ দুদকের তদন্ত শুরু, বেরিয়ে আসছে অজানা কাহিনী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে নবাগত পুলিশ সুপার হবিগঞ্জকে সুশৃংখল জেলায় রূপান্তর করতে সক্ষম হব আইসিবির ৫ কর্মকর্তাসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে ১২ মামলা ‘সরকারের চাপে পদত্যাগ ও নির্বাসিত হতে বাধ্য হয়েছি’ আপত্তি সত্বেও সংসদে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কারও মান-অভিমান ভাঙানোর ইচ্ছে নেই: প্রধানমন্ত্রী সাভারে পুলিশ সোর্স নয়নকে পিটিয়ে হাত-পা ভাঙ্গলো সন্ত্রাসীরা শ্রীপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ প্রতিবন্ধী কোটা রাখতে সংসদীয় কমিটির সুপারিশ



ভৈরবে ১০ টাকা কেজির ১৬০ বস্তা চাল উদ্ধার, আটক ২

ভৈরবে ১০ টাকা কেজির ১৬০ বস্তা চাল উদ্ধার, আটক ২






ভৈরব প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১০টাকা কেজির ৯৬ বস্তা চাল গায়েব ও ১৬০ বস্তা চাল অবৈধভাবে মজুদ করার অভিযোগে ডিলারসহ ২ ব্যক্তিকে আটক করে র‌্যাব সদস্যরা।

গোপন সংবাদ পেয়ে বুধবার দিবাগত রাতে র‌্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্পের অধিনায়ক এডিশনাল এসপি রফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায়েরের নেতৃত্বে শুম্ভুপুর রেলগেইট এলাকা থেকে শিবপুর ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব ডিলার মিজানুর রহমানের সহযোগী কামরুল ইসলামের একটি গোডাউনে অসৎ উদ্দেশ্যে বিক্রয়ের জন্য মজুতকৃত ১৬০ বস্তা চাল উদ্ধারসহ শিবপুর ইউনিয়নের ডিলার মিজানুর রহামান (৪৭) ও সহযোগী কামরুল ইসলামকে (৬০) আটক করে র‌্যাব। আটককৃত মিজানের বাড়ি ছনছাড়া গ্রামে এবং সহযোগী কামরুলের বাড়ি শহরের লক্ষীপুর গ্রামে।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়, গরীবদের মাঝে ১০টাকা কেজি দরে বিক্রয়ের জন্য প্রতি ইউনিয়নে ২জন করে খাদ্যবান্ধব ডিলার নিয়োগ দেয়া হয়। উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নে ২ জনের মধ্যে মিজানুর রহমান নামে একজন ডিলার রয়েছে। চলতি মাসের ৯ তারিখ ৩৭৬ বস্তা চাল ভৈরব খাদ্য গোডাউন থেকে উত্তোলন করার জন্য ওই ডিলারকে অনুমতি পত্র দেয় ভৈরব উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ অফিসার মো: শরীফ মোল্লা।

রহস্যজনক কারণে বরাদ্দকৃত ৩৭৬ বস্তা চালের মধ্যে ডিলার মিজানুর রহমান ১২০ বস্তা চাল উত্তোলন করে ছনছাড়ায় একটি গোডাউনে বিতরণের জন্য রাখেন এবং ওই ডিলারের সহযোগি কামরুল ইসলামের নামে খাদ্য গোডাউন থেকে ১৬০ বস্তা চাল উত্তোলন করে কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে গোপনে অন্য একটি গোডাউনে মজুদ রাখে। এরমধ্যে বাকী ৯৬ বস্তা চালের কোন হদিস পাওয়া যায়নি। ভৈরব খাদ্য নিয়স্ত্রণ অফিস ও খাদ্য গোডাউনের কর্মকর্তা কর্মচারীদের সহযোগিতায় দীর্ঘদিন ধরে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট কালোবাজারে চাল, ধান বিক্রি করার অভিযোগ উঠে।

র‌্যাবের হাতে আটক শিবপুর ইউনিয়নের অভিযুক্ত ডিলার মিজানুর রহমান বলেন, কামরুল ইসলাম সাব ডিলার হিসেবে কাজ করছে। বরাদ্দকৃত ৩৭৬ বস্তা চালের মধ্যে তার গোডাউনে ১২০ বস্তা ও কামরুলের অপর একটি গোডাউনে ১৬০ বস্তা চাল রাখা হয়। তবে ৭৬ বস্তা চাল কোথায় আছে জবাব দিতে পারেননি তিনি।

আটককৃত অপর অভিযুক্ত কামরুল ইসলাম বলেন, সে কোন ডিলার না। মিজান তার বন্ধু হওয়ায় তার গোডাউনে চাল মজুদ রাখা হয়। তিনি জানান শিবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো: শফিকুল ইসলাম ইউএনও স্যারের সাথে কথা বলেই চাল গুলো এ গোডাউনে রাখতে বলেন। ইউএনও সাহেবের লিখিত অনুমতি নিয়েছে কিনা জানতে চাইলে মৌখিক অনুমতি দিয়েছেন বলে জানান।

খবরটি শেয়ার করুন..


Loading…






© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com