September 21, 2018, 5:49 pm

শিরোনাম :
চুনারুঘাটে সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ দুদকের তদন্ত শুরু, বেরিয়ে আসছে অজানা কাহিনী সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে নবাগত পুলিশ সুপার হবিগঞ্জকে সুশৃংখল জেলায় রূপান্তর করতে সক্ষম হব আইসিবির ৫ কর্মকর্তাসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে ১২ মামলা ‘সরকারের চাপে পদত্যাগ ও নির্বাসিত হতে বাধ্য হয়েছি’ আপত্তি সত্বেও সংসদে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কারও মান-অভিমান ভাঙানোর ইচ্ছে নেই: প্রধানমন্ত্রী সাভারে পুলিশ সোর্স নয়নকে পিটিয়ে হাত-পা ভাঙ্গলো সন্ত্রাসীরা শ্রীপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ প্রতিবন্ধী কোটা রাখতে সংসদীয় কমিটির সুপারিশ



চুনারুঘাট আল্লাহর দয়ার বৃষ্টি’ জন্য দোয়া বৃষ্টি নেই খাদ্যশস্যের উৎপাদন প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে

চুনারুঘাট আল্লাহর দয়ার বৃষ্টি’ জন্য দোয়া বৃষ্টি নেই খাদ্যশস্যের উৎপাদন প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে






নুর উদ্দিন সুমন ঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাট জারুলিয়া গাজিপুর আল্লাহর দয়ার বৃষ্টি’ জন্য দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।দীর্ঘদিন বৃষ্টি নেই খাদ্যশস্যের উৎপাদন প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। একসময় আমাদের দেশে বৃষ্টির জন্য প্রায়ই প্রার্থনা করতে দেখা যেত। যদিও এখন সেটা খুব একটা দেখা যায় না। আমাদের দেশে কৃষি জমির পানি সংকট কী পর্যায়ে পৌঁছেছে এটি থেকে তার একটা ধারণা পাওয়া যায়। তাই গতকাল আমরুড এলাকার আলেম উলামাগণ পৃথিবীতে আল্লাহর দয়ার বৃষ্টি’ জন্য দোয়া করতে আহ্বান জানান। অনাবৃষ্টির কারণে খাদ্যশস্যের উৎপাদন প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। আমাদের দেশে অধিকাংশ লোক কৃষিখাতে নিয়োজিত। কিন্তু খরার কারণে হাজার হাজার লোক বেকার হয়ে পড়েন। ওই খরার কারণে চুনারুঘাট উপজেলার অর্ধেক ধানি জমি গম শস্য নষ্ট হয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন, ওই মোনাজাতে অংশ গ্রহন করেন সকল পেশাজীবীর লোকজন । বৃষ্টির জন্য দোয়া প্রার্থনা একটি ইসলামি ঐতিহ্য। যেটি মোহাম্মদ (সা.) সময় থেকে চলে আসছে।বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা, ইসতিসকার নামাজ অনাবৃষ্টির যাতনা-কষ্ট থেকে পরিত্রাণের জন্য মহানবি (সা.) বিশেষ নামাজ ও দোয়ার শিক্ষা দিয়েছেন। ইসলামি পরিভাষায় যাকে ইসতিসকার নামাজ বা বৃষ্টির নামাজ বলা হয়। ইসতিসকা শব্দেরও অর্থ বৃষ্টির জন্য দোয়া করা। বর্তমান প্রেক্ষাপটে জাতীয়ভাবে এবং দেশের বিভিন্ন এলাকায় মসজিদের ইমাম ও ধর্মীয় নেতাদের তত্ত্বাবধানে সে নামাজ পড়া উচিত। সম্মিলিত দোয়ার আয়োজন করা প্রয়োজন। আমরা যখন খরায় পুড়ি, বৃষ্টির অভাবে ভয়াবহ ক্ষতির সম্মুখীন হই, তখন আমাদের কর্তব্য হল বিনয়, আহাজারী, তাওবা ও ইস্তেগফারের মাধ্যমে বৃষ্টির জন্য আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের কাছে প্রার্থনা করা। ঠিক কবে এবং কখন ঝরবে এই রহমতের ঝর্ণাধারা? কবে দূরীভূত হবে এই তাপদাহ? জানি না এবং এই না জানাই একজন মুসলমানের ইমানিত্ব।

খবরটি শেয়ার করুন..


Loading…






© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com