রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৮:৩২ অপরাহ্ন



বাংলাদেশকে ২৮৭ রানের বড় লক্ষ্য দিল জিম্বাবুয়ে

বাংলাদেশকে ২৮৭ রানের বড় লক্ষ্য দিল জিম্বাবুয়ে



স্পোটস ডেস্ক: ইনিংসের শুরুতেই তিন ওভারের মধ্যে দুই উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিল জিম্বাবুয়ে। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন শন উইলিয়ামস ও ব্রেন্ডন টেইলর। অপরাজিত থেকে ১৪৩ বলে ১২৯ রানের অসাধারণ এক ইনিংস খেলেন উইলিয়ামস। তাকে সঙ্গ দেন বাকি ব্যাটাররাও। ফলে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে ২৮৭ রানের বড় লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে সফরকারীরা।

আরিফুলের দুর্দান্ত থ্রোতে রানআউট মুর: ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে উইকেটে আসা পিটার মুরের কাজ ছিল জিম্বাবুয়ের স্কোরকে তিনশ রানে পৌঁছে দেওয়া। ৪৬তম ওভারে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার পরপর দুই বলে ছয় হাঁকিয়ে নিজের লক্ষ্যের কথা জানিয়েও দেন তিনি।

তার সঙ্গী শন উইলিয়ামসও সেঞ্চুরি পূরণ করার পর ব্যাট করেছেন তেড়েফুঁড়ে। ৩৩ বলে এই জুটি পূরণ করেছে পঞ্চাশ রান। তবে ইনিংসের শেষ পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন থাকতে পারেননি দুজনে। শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে আরিফুল হকের দুর্দান্ত থ্রোতে রানআউট হয়েছেন মুর।

মুরের বিদায়ে ভেঙেছে ৪৩ বলে ৬২ রানের দারুণ একটি জুটি। তার ব্যাট থেকে এসেছে ২১ বলে ২৮ রান।

দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে উইলিয়ামসের দ্বিতীয় ওয়ানডে সেঞ্চুরি

শন উইলিয়ামস তুলে নিয়েছেন ১২২ ম্যাচের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। ৪৪তম ওভারের শেষ বলে সিঙ্গেল নিয়ে তিন অঙ্কের ম্যাজিকাল ফিগার স্পর্শ করেছেন এই বাঁহাতি ব্যাটার।

১২৪ বলে সেঞ্চুরি হাঁকাতে ৭টি চার মেরেছেন উইলিয়ামস। ৭৩ বলে হাফসেঞ্চুরি করে পরের পঞ্চাশ রান তিনি করেছেন ৫১ বলে।

পুরো সিরিজ জুড়ে দারুণ ব্যাটিং শৈলী উপহার দিয়েছেন বাঁহাতি উইলিয়ামস। মিরপুরে প্রথম ওয়ানডেতে অপরাজিত ৫০ রান করেছিলেন তিনি। দ্বিতীয় ম্যাচে তার ব্যাট থেকে এসেছিল ৪৭ রান।

৪৫ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের স্কোর ২৩৮/৪। উইলিয়ামস ১০৫ ও পিটার মুর ৬ রানে উইকেটে আছেন।

অপুর দ্বিতীয় শিকার রাজা

৪৩তম ওভারের প্রথম বলে দলীয় ২২২ রানের মাথায় পতন হলো জিম্বাবুয়ের চতুর্থ উইকেটের। সিকান্দার রাজাকে লং অনে সৌম্য সরকারের ক্যাচে পরিণত করে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় উইকেটের দেখা পেয়েছেন নাজমুল ইসলাম অপু।

৫১ বলে রাজা ৪০ রান করেছেন ২ চার ও ১ ছয়ে। তার বিদায়ে ভাঙল জিম্বাবুয়ের ৯৩ বলে ৮৪ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি।

উইলিয়ামস-রাজার ব্যাটে দুইশ ছাড়াল সফরকারীরা

ব্রেন্ডন টেইলরের বিদায়ের পর ফের বড় জুটি পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। শক্ত ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে শন উইলিয়ামস ও সিকান্দার রাজা মিলে দলকে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে নিচ্ছেন। তাদের বিপরীতে খুব একটা সুযোগ তৈরি করতে পারছেন না বাংলাদেশের বোলাররা।

৩৭তম ওভারের দ্বিতীয় বলে মাশরাফি বিন মুর্তজাকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৫৮ বলে জুটির রান পঞ্চাশে নিয়ে গেছেন উইলিয়ামস। পরের ওভারের শেষ বলে জিম্বাবুয়ের স্কোর দুইশ স্পর্শ করেছে। দলটির প্রথম একশ এসেছিল ঠিক ২১ ওভারে। পরের একশ রান বেশ দ্রুত তুলেছে তারা। এবারে ১৭ ওভার খেলতে হয়েছে তাদের।

৪০ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ২০৯ রান। উইকেটে আছেন উইলিয়ামস ৯০ ও রাজা ৩৩ রানে।

অতিথিদের হাতে রয়েছে মূল্যবান ৭ উইকেট। ইনিংসের বাকি আরও ১০ ওভার। ফলে বাংলাদেশকে বড় লক্ষ্য ছুঁড়ে দেওয়ার স্বপ্ন দেখছে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার দল।

টেইলরকে ফিরিয়ে শতরানের জুটি ভাঙলেন অপু

ব্রেন্ডন টেইলর ক্রমেই বিপজ্জনক হয়ে উঠছিলেন। শন উইলিয়ামসও দারুণ সঙ্গ দিচ্ছিলেন তাকে। ফলে চাপে পড়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বারবার বোলার পরিবর্তন করেও পাচ্ছিলেন না সাফল্য। অবশেষে এই জুটি ভেঙে টাইগার শিবিরে স্বস্তি এনে দিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু।

২৭তম ওভারের চতুর্থ বলটি স্লগ সুইপ করতে চেয়েছিলেন টেইলর। কিন্তু বল তার ব্যাটের কানায় লেগে অনেক উঁচুতে উঠে যায়। সুযোগ হাতছাড়া করেননি উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিম। নির্ভরতার সঙ্গে ক্যাচ লুফেছেন।

আগের ম্যাচে ৭৩ বলে ৭৫ রান করেছিলেন টেইলর। এ ম্যাচে একই রান করেছেন এক বল কম খেলে। মেরেছেন ৮ চার ও ৩ ছয়। তার বিদায়ে ভাঙল জিম্বাবুয়ের ১৪৫ বলে ১৩২ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি।

দলীয় ১৩৮ রানে সফরকারীদের তৃতীয় উইকেটের পতন হয়েছে। এই প্রতিবেদন লেখার সময় তাদের সংগ্রহ ২৮ ওভারে ৩ উইকেটে ১৪৭ রান। উইলিয়ামস ৫৫ ও ছক্কা মেরে রানের খাতা খোলা সিকান্দার রাজা ৬ রানে ব্যাট করছেন।

টেইলরের পর উইলিয়ামসের ফিফটি

২৫তম ওভারের প্রথম বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেছেন শন উইলিয়ামস। সিরিজে ধারাবাহিকভাবে রানের মধ্যেই আছেন এই বাঁহাতি তারকা ব্যাটসম্যান। প্রথম ওয়ানডেতেও ফিফটি পেয়েছিলেন তিনি। ৭৩ বলে চারটি চার হাঁকিয়ে ফিফটি পূরণ করেছেন তিনি।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় ২৫ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১২৯ রান। টেইলর ৬৮ ও উইলিয়ামস ৫০ রানে উইকেটে আছেন।

জিম্বাবুয়ের স্কোর পেরুল একশ

১৪.৩ ওভারে জিম্বাবুয়ের স্কোর ছুঁয়েছিল পঞ্চাশ রান। আর ২১তম ওভারের শেষ বলে দলীয় একশ রান পূরণ করেছে তারা। চাপ কাটিয়ে উইকেটে থিতু হয়ে দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন টেইলর ও শন উইলিয়ামস ছড়ি ঘোরাচ্ছেন বাংলাদেশের বোলারদের ওপর।

শুরুতে উইলিয়ামসের চেয়ে পিছিয়ে থাকলেও মারমুখী ব্যাটিংয়ে তাকে পেছনে ফেলেছেন টেইলর। তাদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ের ইনিংস।

বাংলাদেশের বিপক্ষে টেইলরের দশম হাফসেঞ্চুরি

বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দশম হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন ব্রেন্ডন টেইলর। ২০তম ওভারে মাশরাফি বিন মর্তুজার তৃতীয় বলে সিঙ্গেল নিয়ে চলতি সিরিজে টানা দ্বিতীয় ফিফটি পূরণ করেছেন তিনি।

৫ চারের সঙ্গে ২ ছয় মেরে ৪৯ বলে টেইলর স্পর্শ করেছেন ফিফটি। তাকে সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছেন শন উইলিয়ামস।

প্রথম ১০ ওভারে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ছিল ২ উইকেটে ৩৫ রান। দ্রুত ২ উইকেট হারিয়ে বাজে পরিস্থিতি পড়ে যাওয়া দলটি ঘুরে দাঁড়িয়ে পরের ১০ ওভারে হতাশ করেছে বাংলাদেশের বোলারদের। কোনো উইকেট না হারিয়ে তারা যোগ করেছে ৫৮ রান। বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ব্যাট করেছেন টেইলর ও উইলিয়ামস।

২০ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৯৩ রান। টেইলর ৫৪ ও উইলিয়ামস ৩২ রানে ব্যাটিং করছেন।

টেইলর-উইলিয়ামস জুটিতে পঞ্চাশ

দ্রুত ২ উইকেট হারানোর পর পাল্টা প্রতিরোধের কাজটা দারুণভাবে শুরু করেছেন জিম্বাবুয়ের ব্রেন্ডন টেইলর ও শন উইলিয়ামস। ৭৪ বলে এই জুটিতে এসেছে পঞ্চাশ রান।

অভিষিক্ত আরিফুল হকের করা পঞ্চদশ ওভারের শেষ বলে চার মেরে তৃতীয় উইকেট জুটিতে পঞ্চাশ রান পূরণ করেছেন টেইলর। আগের ম্যাচেও উইলিয়ামসের সঙ্গে জুটি বেঁধে ৭৭ রান যোগ করেছিলেন তিনি।

এই প্রতিবেদন লেখার সময় ১৫ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৫৯ রান। টেইলর ২৬ ও উইলিয়ামস ২৭ রানে উইকেটে আছেন।

১০ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৩৫ রান

অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেইলর ও শন উইলিয়ামসের ব্যাটে চড়ে ইনিংস মেরামতের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ে। পাওয়ার প্লে’র প্রথম ৫ ওভারে জিম্বাবুয়ের রান ছিল ৭। পরের ৫ ওভারে দ্রুতগতিতে এগিয়ে দলটি সংগ্রহ করেছে ২৮ রান।

প্রথম ওভারে লেগ বাই থেকে চার হওয়ার পর ব্যাট থেকে প্রথম বাউন্ডারি পেতে জিম্বাবুয়েকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ষষ্ঠ ওভার পর্যন্ত। পাওয়ার প্লেতে দুই ব্যাটার মিলে মেরেছেন চারটি চার।

১০ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের স্কোর ২ উইকেটে ৩৫ রান।। টেইলর ১৪ ও উইলিয়ামস ১৫ রানে ব্যাট করছেন।

শুরুতেই সাইফ-রনির জোড়া আঘাত

বাংলাদেশের পক্ষে বোলিং আক্রমণের সূচনা করেছেন আবু হায়দার রনি ও মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন। ইনিংসের প্রথম তিন ওভারের মধ্যেই দুজন তুলে নিয়েছেন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনারের উইকেট। দ্বিতীয় ওভারে বোলিং করতে এসেই তৃতীয় বলে চেফাস ঝুওয়াওয়ের অফ স্ট্যাম্প উপড়ে দিয়েছেন সাইফ। ৩ বল খেলে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরেছেন ঝুওয়াও।

ফলে দলীয় ৬ রানে পতন ঘটে জিম্বাবুয়ের প্রথম উইকেটের। পরের ওভারে দলটির স্কোর পরিবর্তন হওয়ার আগেই বিদায় নিয়েছেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। তার উইকেটটি শিকার করেছেন রনি। জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক রনির ডেলিভারিটি ড্রাইভ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাটের ভেতরের কানায় লেগে বল আঘাত হানে স্ট্যাম্পে। ফলে টানা দুই ম্যাচে ব্যর্থ তিনি।

৬ রানে ২ উইকেট হারিয়ে ভীষণ চাপে পড়া জিম্বাবুয়ের ইনিংস মেরামতের দায়িত্ব এবার অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেইলর ও শন উইলিয়ামসের কাঁধে। এই প্রতিবেদন লেখার সময় ৫ ওভার শেষে তাদের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৭ রান। টেইলর ০ ও উইলিয়ামস ১ রানে ব্যাট করছেন।

প্রথম ৫ ওভারের ৩ ওভারই মেডেন নিয়েছেন সাইফ-রনি।

আরিফুলের অভিষেক, একাদশে ফিরলেন সৌম্য-রনি

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে স্কোয়াডে থাকা বাকি ক্রিকেটারদের পরখ করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। বহু প্রতীক্ষিত ওয়ানডে অভিষেকের স্বাদ পাচ্ছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার আরিফুল হক।

১৩০তম ক্রিকেটার হিসেবে বাংলাদেশের জার্সিতে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে যাচ্ছেন আরিফুল। তার সঙ্গে একাদশে ফিরেছেন বাঁহাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার ও বাঁহাতি পেস বোলার আবু হায়দার রনি।

এই তিনজনকে জায়গা করে দিতে গিয়ে একাদশ থেকে সরে দাঁড়াতে হয়েছে বাঁহাতি ব্যাটার ফজলে মাহমুদ রাব্বি, স্পিন অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ ও বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে।

জিম্বাবুয়ের একাদশেও পরিবর্তন এসেছে দুটি। ব্রান্ডন মাভুতা ও টেন্ডাই চাতারার পরিবর্তে একাদশে ঢুকেছেন রিচার্ড এনগারাভা ও ওয়েলিংটন মাসাকাদজা।

বাংলাদেশ একাদশ :
লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, আরিফুল হক, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মাশরাফি বিন মর্তুজা, নাজমুল ইসলাম, আবু হায়দার রনি।

জিম্বাবুয়ে একাদশ :
হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, চেফাস ঝুওয়াও, এলটন চিগুম্বুরা, ব্রেন্ডন টেইলর, শন উইলিয়ামস, পিটার মুর, সিকান্দার রাজা, ডোনাল্ড তিরিপানো, রিচার্ড এনগারাভা, কাইল জার্ভিস, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা।

হোয়াইটওয়াশের লক্ষ্যে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ

টানা তৃতীয় ম্যাচে টসে জিতেছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। আগের ম্যাচে পরে ব্যাটিং করে পাওয়া জয়ের সাফল্যে অনুপ্রাণিত হয়েই কি না তিনি ফের বেছে নিয়েছেন ফিল্ডিং। ফলে তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে সফরকারী জিম্বাবুয়েকে শুরুতে নামতে হয়েছে ব্যাটিংয়ে।

শুক্রবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের মধ্যকার নিয়মরক্ষার শেষ ম্যাচটি শুরু হয় ২টা ৩০ মিনিট থেকে। আগের দুই ম্যাচে দাপুটে জয়ে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে মাশরাফিবাহিনী। জিম্বাবুয়েকে ‘হোয়াইটওয়াশ’ করার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নেমেছেন তারা।

খবরটি শেয়ার করুন..








© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com

Desing & Developed BY W3Space.net