শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০১:০১ অপরাহ্ন



মাদারীপুর-২ আসনে নৌকার পালে নতুন হাওয়া!

মাদারীপুর-২ আসনে নৌকার পালে নতুন হাওয়া!



সাব্বির হোসাইন আজিজ, মাদারীপুর : মাদারীপুর জেলা আওয়ামীলীগের সবাপতি সাহাবুদ্দিন আহমেদ মোল্লা নিয়মিত ভাবে দলীয় প্রগ্রামসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানগুলোতেও অংশগ্রহণ করে সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড জনগণের সামনে তুলে ধরছেন। তাই সাধারন জনগন মনে করছেন নৌকার পালে নতুন হাওয়া লেগেছে,  আমরাও পরিবর্তন চাই নতুন মুখ আসুক। তৃনমুলের কাথা চিন্তা করেই জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকেই মনোনয়ন দিবেন, সে এই হবেন মাদারীপুর ২ আসনের কান্ডারী।

স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, শুধু মাদারীপুর-২ আসনই নয়। পুরো জেলার মোট জনসংখ্যা ৮০ ভাগ মানুষই নৌকা প্রতীকের সমর্থক। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালনকারী মানুষের ঘাঁটি; মাদারীপুর জেলার মাটি। এখানে ব্যক্তি কোন বিষয় নয়; দলীয় নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন যিনি পাবেন, তিনিই হবেন এই আসনে এমপি। মানুষ পরিবর্তন চায়, তাই দলীয় মনোনয়নের প্রতাশায় নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে অনেকে। ‘আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য জেলা আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতা সাহাবুদ্দিন আহমেদ মোল্লা নিয়মিত ভাবে দলীয় প্রগ্রামসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানগুলোতেও অংশগ্রহণ করে সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড জনগণের সামনে তুলে ধরছেন। স্থানীয় ভোটাররা আশা করেন জননেত্রী শেখ হাসিনা মাদারীপুর ২ সংসদীয় আসনের যাচাই বাচাই করে তৃনুমুলের মতামত নিয়ে মনোনয়ন দিবেন।

শাহাবুদ্দিন মোল্লা বলেন, জেলার বড় অংশের আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা একটি পরিবারের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। এখান থেকে নেতাকর্মী ও এই এলাকার মানুষ মুক্তি চায়। তারা পরিবর্তন চায়। আমিও দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতি করে আসছি। আমি মনে করি সংসদ সদস্য হওয়ার মত যথেষ্ট যোগ্য আমি। তাই দলীয় নেতাকর্মীরা আমাকে ও আমার নিজ উপজেলা রাজৈরবাসীও আমাকে এমপি নির্বাচন করার জন্য চাপ সৃষ্টি করেছে। তাই দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয়; আমি মাদারীপুর-২ আসনে নির্বাচন করবো। তাছাড়া মানুষও ও দলীয় কর্মীরাও নতুন মুখ দেখতে চায়। আমি দলীয় নমিনেশন পেয়ে আমি নৌকা মার্কায় নিয়ে বিজয় হয়ে দেশ জনগনের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে চাই।

মাদারীপুর জেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগ একধিক নোতারা জানান,‘প্রধানমন্ত্রী মাদারীপুরে নৌকা প্রতীকে যাকেই মনোনয়ন দেবে, আমরা যুবলীগ,জেলা ছাত্রলীগ তার নির্বাচন করতে প্রস্তুত। তবে এবার আওয়ামীলীগ এমপি প্রর্থী হিসেবে মাদারীপুর বাসীকে নতুন মুখ এনে দিতে চাই। কারণ গত ২৫ বছর ধরে মাদারীপুরের আওয়ামীলীগে নতুন মুখ আসেনি। মানুষও পরিবর্তন চায়।

এবিষয়ে জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক গোলাম মাওলা আকন্দ বলেন, ‘গত ২৫ বছর ধরে আমরা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে একজন ব্যক্তিকে মনোনয়ন দিয়ে আসছি। কিন্তু এবার দলীয় নেতাকর্মীরা পরিবর্তন দেখতে চাচ্ছে। তাই এবার দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে আশা করছি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তৃণমূলের মতামতকে প্রধান্য দিয়ে মাদারীপুর-২ আসনের নমিনেশন দেবে।

খবরটি শেয়ার করুন..








© All rights reserved 2018 somoyersangbad24.com

Desing & Developed BY W3Space.net